কাজ দ্রুত শেষ করতে গিয়ে এই দুর্ঘটনা

সিলেট: সিলেট নগরীর নয়াসড়কের পুনর্নির্মাণ কাজ দ্রুত শেষ করতে গিয়ে মিনার ভেঙে রাস্তায় পড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। অপরিকল্পিত ভাবে এবং কাজ দ্রুত শেষ করতে গিয়ে এই ঘটনা ঘটে বলে একাধিক এলাকাবাসীর অভিযোগ।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মসজিদের মিনার ভাঙতে গিয়ে তা রাস্তায় ভেঙে পড়ে। এতে পার্শ্ববর্তী একটি বৈদ্যুতিক খুঁটিও হেলে পড়েছে। এই ঘটনায় তাৎক্ষণিক ভাবে এক মোটরসাইকেল আরোহীর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় ও নয়াসড়ক পঞ্চায়েত কমিটির উদ্যোগে নয়াসড়ক জামে মসজিদের পুনর্নির্মাণ কাজ চলছে। চলমান কাজের অংশ হিসেবে সোমবার সকালে মসজিদের মিনার ভাঙার কাজ শুরু হয়। ভাঙার এক পর্যায়ে মিনারটি ভেঙে রাস্তায় পড়ে।

এই ঘটনায় নগরীর নিলয় চৌহাট্টা এলাকার মোস্তাক আহমেদ (৩৫) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী আহত হন। ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশ বক্সের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওমর ফারুক আহতের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।

একাধিক এলাকাবাসী  বলেন, রোববার কয়েকজন ভাঙাড়ি (বিল্ডিং ভাঙার কাজে নিয়োজিত পেশাজীবী) মসজিদের মিনার ভাঙার কাজ পেতে আসেন। তারা মিনারের ওপর থেকে ভেঙে-ভেঙে নিচে নামবে বলে তাদের পরিকল্পনার কথা জানায়। কিন্তু মসজিদ কমিটি তাদের সেই প্রস্তাবে রাজি হননি।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, সোমবার সকালে সিটি করপোরেশনের কয়েকজন কর্মী মসজিদের মিনার ভাঙার কাজ শুরু করেন। তারা মিনারের মাঝামাঝি অংশে এসকেবেটর দিয়ে ভাঙার কাজ শুরু করলে এক পর্যায়ে মিনারটি ভেঙে রাস্তায় গিয়ে পড়ে, এবং তাৎক্ষণিকভাবে একজন মোটরসাইকেল আরোহী আহত হন।

এ ব্যাপারে নয়াসড়ক পঞ্চায়েত কমিটির কারও বক্তব্য তাৎক্ষণিক ভাবে পাওয়া যায়নি। তবে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানান, এই ঘটনায় কারো গাফিলতি থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিয়া জানান, এসকেবেটর চালক কোনো ধরনের সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা না নিয়েই কাজ শুরু করেন। পুলিশকেও বিষয়টি অবগত করা হয়নি। তার ভুলের কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে তাকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছে।