রাজশাহীতে পুকুরে ৮ ফুট লম্বা কুমির

নিজস্ব প্রতিবেদক

সকালে ব্রাশ করতে করতে পুকুরে যান জয়নাল হোসেন। হাত-মুখ ধোয়ার জন্য পুকুর ঘাটে নামবেন, এমন সময় দেখতে পান পানিতে ভাসছে কুমির।

ভয়ে জয়নাল হোসেনরে চক্ষু চড়ক-গাছ। চিৎকার ও শোর-গোলে ক্রমেই লোকজন জড়ো হতে থাকেন। বাড়ে উৎসাহী মানুষের ভিড়।

খবর পেয়ে আসেন বন বিভাগের লোকজন। দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে উদ্ধার করা হয় কুমিরটিকে। ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার মিয়াপুর (ফকিরের মোড় সংলগ্ন) গ্রামে।

রোববার (২২ আগস্ট) চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কাছে জনৈক টুলু প্রফেসার সাহেবের বাড়ির পাশের পুকুরে কুমিরটি পাওয়া যায়।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মী, ফায়ার সার্ভিস ও চারঘাট মডেল থানা পুলিশের মিলিত প্রচেষ্টায় দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা পরে কুমিরটি উদ্ধার করা হয়।

কুমিরটি ৮ ফুটের মতো লম্বা। ওজন প্রায় ৭০ কেজি। এটি মিঠা পানির কুমির। কুমিরটি উদ্ধার কাজে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেন চারঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজমুল হক।

জানা গেছে, পুকুরটির সাথে ড্রেনেজ ব্যবস্থার মাধ্যমে পদ্মা নদীর সংযোগ রয়েছে। সেই সংযোগ মোহনা দিয়ে কুমিরটি পুকুরে ঢুকে আটকা পড়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পুকুরের পাশের বাড়ির বাসিন্দা জয়নাল হোসেন বলেন, রোববার সকালে ব্রাশ করতে করতে পুকুরে গিয়ে তিনি পানিতে কুমিরটিকে ভাসতে দেখতে পান। কুমিরটি উদ্ধার করে চারঘাট উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।।