শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা ঘোষণা

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) বিপর্যয়ে কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে যাচ্ছে নিম্ন আয়ের মানুষ। এসব গরিব মানুষের জন্য সরকারের কয়েকটি পদক্ষেপের কথা জানিয়ে এক্ষেত্রে ধনীদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (২৫ মার্চ) জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের প্রস্তুতি তুলে ধরার পাশাপাশি প্রণোদনামূলক কর্মসূচিও ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী।

নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তারের গতি কমিয়ে আনার মরিয়া চেষ্টায় সারা দেশে ছুটি ঘোষণার পর সড়ক, নৌ ও আকাশপথে সব ধরনের যোগাযোগও বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার।

এই পরিস্থিতিতে বিশ্বের অন্য অনেক দেশের মত ১৬ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশও কার্যত অবরুদ্ধ দশার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে। সবচেয়ে বিপদে পড়েছে শ্রমজীবী মানুষেরা।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য যেসব প্রণোদনা ঘোষণা দিয়েছেন, তা হল

  • নিম্ন আয়ের ব্যক্তিদের ‘ঘরে-ফেরা’ কর্মসূচির আওতায় নিজ নিজ গ্রামে সহায়তা প্রদান করা হবে।
  • গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য বিনামূল্যে ঘর, ৬ মাসের খাদ্য এবং নগদ অর্থ প্রদান করা হবে। জেলা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
  • ভাষাণচরে ১ লাখ মানুষের থাকার ও কর্মসংস্থান উপযোগী আবাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে কেউ যেতে চাইলে সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
  • বিনামূল্যে ভিজিডি, ভিজিএফ এবং ১০ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। একইভাবে বিনামূল্যে ওষুধ ও চিকিৎসা সেবা ও দেওয়া হচ্ছে।

এই পদক্ষেপগুলো তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি নিম্নআয়ের মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।” সীমিত আয়ের মানুষকে কেনার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এখন কৃচ্ছতা সাধনের সময় মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, “যতটুকু না হলে নয়, তার অতিরিক্ত কোনো ভোগ্যপণ্য কিনবেন না, মজুদ করবেন না।”

এ বছর রোপা আমনের বাম্পার ফলনের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারি গুদামগুলোতে ১৭ লাখ মেট্রিক টনের বেশি খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে।

“এছাড়া, বেসরকারি মিল মালিকদের কাছে এবং কৃষকদের ঘরে প্রচুর পরিমাণ খাদ্যশস্য মজুদ আছে। চলতি মওসুমে আলু-পেঁয়াজ-মরিচ-গমের বাম্পার ফলন হয়েছে।”

কোনো জমি ফেলে না রেখে আরও বেশি বেশি ফসল ফলানোর জন্য কৃষকদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরার পাশাপাশি সরকারের উপর আস্থা রাখতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, “আজ সমগ্র বিশ্ব এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে চলছে। তবে যে কোনো কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য আমাদের সরকার প্রস্তুত রয়েছে।

“আমরা জনগণের সরকার। সব সময়ই আমরা জনগণের পাশে আছি। আমি নিজে সর্বক্ষণ পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।”

এইচকে/ আই নিউজ