‘সরকার আমাদের আর কত ঠকাবে’

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির লাগাম নেই। প্রতিদিনই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। ট্রাক বা পিকআপ ভ্যানে করে পেঁয়াজ বিক্রি করছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। তবে সাশ্রয়ী মূল্যে এই পেঁয়াজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ক্রেতারা।

ক্রেতাদের অভিযোগটিসিবি প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪৫ টাকায় বিক্রি করলেও তা অনেক নিম্নমানের। দুই কেজি পেঁয়াজে আধা কেজির মতো নষ্ট থাকে।

পেঁয়াজ কিনতে আসা শহরের গাইটালর কাইয়ুম মিয়া ও শহরতলির নামাপাড়া এলাকার আবুল হাসেম জানানসকালে ২কেজি করে পেঁয়াজ কেনেন তারা। এর মধ্যে প্রায় আধা কেজির মতো নষ্ট ছিল।

তারা অভিযোগ করে বলেনবড় বড় পেঁয়াজ দুই কেজিতে ১২/১৩টি হয়। তার মধ্যে ৩/৪টিই পচা বা নষ্ট থাকে।

তারা বলেন, ‘পচা পেঁয়াজ বদলে নিতে চাইলে তারা বদলে দিচ্ছেন না। সরকার আমাদেরকে আর কত ঠকাবে!’

কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে ও শহরের কালীবাড়ি মোড় এলাকায় রোববার টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির সময় এসব অভিযোগ ওঠে।

বাজারে দাম বেশি হওয়ায় এখানে পেঁয়াজ কিনতে ভিড় জমান শতাধিক ক্রেতা।

টিসিবির পেঁয়াজ নষ্ট কেন জানতে চাইলে ওই গাড়িতে থাকা একজন বিক্রেতা বলেন‘আমাদের তো কিছু করার নেই। পেঁয়াজের বস্তার ভেতরে যদি নষ্ট থাকেতাহলে আমরা কী করব’।

মেসার্স  ছামিউল এন্টারপ্রাইজ টিসিবির কিশোরগঞ্জ জেলার ডিলার মো. ছামিউল হক পেঁয়াজ পচা থাকার কথা স্বীকার করে বলেন‘আমরা তো মুখ বাঁধা বস্তা নিয়ে আসি। যা খুলে দেখে আনা সম্ভব নয়। তারা যদি আমাদের বস্তার ভেতরে পচা পেঁয়াজ দিয়ে দেয় আমরা কী করব। তারপরও অনেকের পচা পেঁয়াজ বলে দিচ্ছি। তাতে আমাদের অনেক লোকসান গুনতে হচ্ছে’।